নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি: একর্ড সেইফটি এন্ড হেল্‌থ কমপ্লেইন্টস মেকানিজ্যম হ্যান্ডলার

বাংলাদেশ একর্ড সম্পর্কে
বাংলাদেশে অগ্নি ও ভবন নিরাপত্তায় একর্ড (“একর্ড”) আন্তর্জাতিক ইউনিয়ন- ইন্ডাস্ট্রিঅল এবং ইউনি, বাংলাদেশী ইউনিয়নসমূহ, এবং বর্তমানে ২২০ টির বেশি ব্র্যান্ড এবং খুচরা বিক্রেতাগণের মধ্যে আইনগতভাবে বাধ্যতামূলক একটি ঐতিহাসিক চুক্তি। একর্ডের লক্ষ্য হলো, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক (আরএমজি) শিল্পের নিরাপত্তার মানোন্নয়ন করা।
 
টার্মস্‌ অফ রেফারেন্স
একর্ড হেড অফ ট্রেইনিং (এইচওটি), কেইস হ্যান্ডলার বিভাগের ম্যানেজার এবং একর্ড নির্বাহী পরিচালকের (ইডি) তত্ত্বাবধানে, একর্ড সেইফটি এন্ড হেল্‌থ কমপ্লেইন্টস স্পেশালিস্ট (এসএইচসিএস) এর কাছে রিপোর্টিং এর মাধ্যমে একর্ড কমপ্লেইন্টস মেকানিজ্যম হ্যান্ডলার (সিএমএইচ) বাংলাদেশে একর্ডের কমপ্লেইন্টস বিভাগের অধীনে কাজ করবে।
 
একর্ড সিএমএইচ এর কর্মক্ষেত্র ঢাকা, ঢাকার আশেপাশে অথবা চট্টগ্রামে হবে।


চাকরির পূর্ণ বিবরণ এখানে ডাউনলোড করুন (ইংরেজীতে)।

মে ২০১৮ এর পর একর্ড অব্যাহত থাকা প্রসঙ্গে বিবৃতি

বাংলাদেশ একর্ডের নিরাপত্তা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে

মে ২০১৮ এর পর একর্ড কার্যক্রমের মেয়াদ বাড়ানোর অনুমোদন দিয়েছে সরকার

স্থানীয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা যখন কারখানা পরিদর্শন, সংস্কার কাজে বাধ্য করা, এবং শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে তাদের পূর্ণ সামর্থ্য প্রদর্শন করবে, তখন একর্ড বাংলাদেশ ছেড়ে চলে যাবে

 

বাংলাদেশ সরকার সম্মত হয়েছে যে, যতদিন পর্যন্ত স্থানীয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা যথাযথভাবে প্রস্তুতির নির্ধারিত শর্তাবলী পূরণ করতে না পারবে ততদিন পর্যন্ত বাংলাদেশে অগ্নি ও ভবন নিরাপত্তায় একর্ড (দ্য একর্ড) কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে।

একর্ডের স্বাক্ষরকারী ব্র্যান্ড এবং ট্রেড ইউনিয়ন, বিজিএমইএ, আইএলও, বাণিজ্য ও শ্রম মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীগণ গত ১৯ অক্টোবর অনুষ্ঠিত সভায় এই সম্মতিতে পৌঁছান। যেহেতু সকল পক্ষ উপলব্ধি করে যে, একর্ড স্বাক্ষরকারী ব্র্যান্ডসমূহের জন্য উৎপাদনকারী কারখানার শ্রমিকদের নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্ব জাতীয় নিয়ন্ত্রক সংস্থার হাতে দায়িত্বপূর্ণভাবে হস্তান্তর করার পূর্বে যথেষ্ট পরিমাণে সক্ষমতা অর্জন করা প্রয়োজন, সেহেতু মে ২০১৮ এর পর কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে প্রস্তুত একর্ড।
আরও পড়ুন

বাংলাদেশে অগ্নি ও ভবন নিরাপত্তায় একর্ড এর দ্বিতীয় মেয়াদে কোম্পানি এবং ট্রেড ইউনিয়নসমূহের ঐক্যমত

আমস্টারডাম/ ঢাকা, ২৯ জুন ২০১৭। কোম্পানি এবং ট্রেড ইউনিয়নসমূহ ২য় মেয়াদে বাংলাদেশে অগ্নি ও ভবন নিরাপত্তায় একর্ড (“একর্ড”) এর জন্য ঐক্যমত পোষণ করেছে। আগামী মে ২০১৮ তে বর্তমান একর্ডের মেয়াদ শেষ হলে এই চুক্তিটি কার্যকর হবে। বাংলাদেশের কারখানাগুলোকে নিরাপদ করে তুলতে কোম্পানি ও ট্রেড ইউনিয়নগুলোর মধ্যে অভূতপূর্ব, আইনগতভাবে বাধ্যতামূলক চুক্তি একর্ড।
আরও পড়ুন

একর্ডের ৪ বছরে বাংলাদেশে পোশাক শিল্পের কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তায় উল্লেখযোগ্য উন্নতি

চার বছরে বাংলাদেশে অগ্নি ও ভবন নিরাপত্তায় একর্ড বাংলাদেশের পোশাক কারখানাসমূহে উল্লেখযোগ্য উন্নতিসাধন করেছে এবং কারখানায় অমীমাংসিত নিরাপত্তা সমস্যা সমাধানে কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমান চুক্তির শেষ বছরে পদার্পণ করে কারখানাগুলোকে সংস্কার কাজ সম্পন্ন করতে সহায়তা করার জন্য একটি সরাসরি আর্থিক সহায়তা কার্যক্রম চালু করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

নিউজলেটার জুলাই ২০১৬

স্বাক্ষরকারী, কারখানা এবং একর্ডের কারখানা নিরাপত্তা কার্যক্রমে আগ্রহী সকলের জন্য বাংলাদেশ একর্ডের নিউজলেটার।

পরিদর্শন
একর্ডে এখন ১০০ জনেরও বেশি ইঞ্জিনিয়ার রয়েছে, যারা প্রতি মাসে প্রায় ৪০০ থেকে ৫০০ টি ফলো- আপ পরিদর্শন করে থাকে। একটি কারখানা গড়ে তিন মাসে অন্তত একবার পরিদর্শিত হয়।
প্রাথমিকভাবে একর্ডের তালিকাভুক্ত হওয়ার পরে ৩ থেকে ৪ মাসের মধ্যেই স্বাক্ষরকারী কোম্পানি এবং কারখানা একটি প্রাথমিক পরিদর্শন আশা করতে পারেন।
আরও পড়ুন

Subscribe to our Newsletter



ত্রৈমাসিক আপডেট মার্চ ২০১৬

স্বাক্ষরকারী, কারখানা এবং একর্ডের কারখানা নিরাপত্তা কার্যক্রমে আগ্রহী সকলের জন্য বাংলাদেশ একর্ডের নিউজলেটার।

পরিদর্শন
একর্ডে স্বাক্ষরকারী কোম্পানিগুলো কারখানা তালিকায় নতুন কারখানা অন্তর্ভুক্ত করছে এবং এপ্রিল ২০১৬ হতে নতুন এক দফায় প্রাথমিক পরিদর্শন পরিচালিত হবে। বর্তমানে সর্বমোট ১৬৬১ টি কারখানা একর্ডের আওতাভুক্ত রয়েছে।

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ একর্ড মাসিক আপডেট – জুলাই ২০১৫

স্বাক্ষরকারী, কারখানা এবং একর্ডের কারখানা নিরাপত্তা কার্যক্রমে আগ্রহী সকলের জন্য বাংলাদেশ একর্ডের নিউজলেটার।

আরও পড়ুন

বাংলাদেশে তৈরী পোশাক কারখানায় নিরাপত্তা উন্নয়নের লক্ষ্যে ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার লোন প্রদানের জন্য ইন্টারন্যাশনাল ফাইনান্স কর্পোরেশন (আইএফসি) এর সাথে একর্ডের সহযোগিতামূলক চুক্তি

বাংলাদেশে অগ্নি ও ভবন নিরাপত্তায় একর্ড ১৫০০ টির বেশি পোশাক কারখানার সাথে সম্পৃক্ত ২০০ এর বেশি আন্তর্জাতিক পোশাক ব্র্যান্ড ও রিটেইলা এবং ২ টি গ্লোবাল ইউনিয়ন ও তাদের সাথে জাতীয় পর্যায়ে তৈরী পোশাক শিল্পের সংশ্লিষ্ট সহযোগীদের নিয়ে স্বাক্ষরিত একটি অভূতপূর্ব ও আইনত বাধ্যতামূলক চুক্তি। এই কারখানাগুলোর সবগুলোতে অগ্নি, বৈদ্যুতিক এবং কাঠামোগত নিরাপত্তা পরিদর্শন সম্পন্ন হয়েছে। সংশোধনী কর্ম পরিকল্পনা (ক্যাপস) তৈরী করা হয়েছে যেখানে কিভাবে এবং কতদিনের মধ্যে চিহ্নিত নিরাপত্তা সমস্যাগুলোর সমাধান করতে হবে সে বিষয়ে নির্দেশনা রয়েছে। পরিদর্শিত কারখানাগুলোতে নিরাপত্তা সমস্যার সমাধান করা একটি ব্যাপক কর্মকান্ড এবং এর জন্য উল্লেখযোগ্য পরিমানে রিসোর্সের প্রয়োজন।
আরও পড়ুন

সর্বপ্রথম সকল নিরাপত্তামূলক সংশোধনী কাজ সম্পন্নকারী কারখানাসমূহের নাম ঘোষনা করেছে একর্ড ২৩ মে ২০১৫

২০ মে, ২০১৫, একর্ডের ইঞ্জিনিয়ারগন যাচাই করে পেয়েছেন বাংলাদেশে একর্ডের তালিকাভুক্ত দুইটি কারখানায় প্রাথমিক পরিদর্শনে চিহ্নিত সকল নিরাপত্তা সমস্যার সংশোধনী কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এই মাইলফলক অর্জনকারী প্রথম কারখানা ২ টি হলো: Concord Fashion Export Ltd. / Jeacon

আরও পড়ুন