রানা প্লাজা এবং ঢাকায় স্টিয়ারিং কমিটির অবস্থান প্রসঙ্গে একর্ডের বিবৃতি

২৩ এপ্রিল ২০১৬

২৪শে এপ্রিল, ২০১৬ তারিখে তিন বছর পূর্ণ হবে মর্মান্তিক রানা প্লাজা ধ্বসের যা কেড়ে নিয়েছিল ১১০০’রও বেশী জীবন এবং আহত হয়েছিল আরও শত শত মানুষ। একর্ডের স্মরণে এবং প্রার্থনায় রয়েছে সেই নিহত ও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ এবং তাদের প্রিয়জনেরা।

এধরনের মর্মান্তিক ঘটনা যেন আবার কখনো না ঘটে তা নিশ্চিত করতেই পরিচালিত হচ্ছে আমাদের সকল কর্মকান্ড। এই কাজে সফল হওয়াকেই এপ্রিল, ২০১৩ তে যারা রানা প্লাজায় প্রাণ হারিয়েছিল এবং আহত হয়েছিল তাদের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনের শ্রেষ্ঠ উপায় বলে মনে করে একর্ড স্বাক্ষরকারীরা।

রানা প্লাজার ঘটনার ৩ বছর পর, একর্ডের তালিকাভুক্ত সকল কারখানায় পরিদর্শন সম্পন্ন হয়েছে, আমাদের প্রাথমিক পরিদর্শনে শনাক্ত হওয়া সকল নিরাপত্তা ঝুঁকির ৫০% এর ও বেশি সংশোধিত হয়েছে, এবং সাতটি কারখানা প্রাথমিক পরিদর্শনে প্রাপ্ত সকল সমস্যা সংশোধন করেছে। এখন পর্যন্ত, ২৩টি কারখানা যারা নিরাপত্তা ঝুঁকিগুলো সংশোধন করতে অনিচ্ছুক ছিল তারা একর্ড স্বাক্ষরকারী কোম্পানিগুলোর সাথে ব্যবসা করতে অযোগ্য বলে ঘোষিত হয়েছে। শ্রমিক-মালিক সেইফটি কমিটিগুলোকে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে এবং কারখানা পর্যায়ে বিভিন্ন স্থানে নিয়মিত নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণের পদ্ধতি গড়ে তোলার জন্য তাদের সহায়তা করা হচ্ছে।

একর্ড আন্তরিক এবং অক্লান্ত প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে যাতে সকল পরিদর্শনকৃত কারখানায় সংশোধন কার্যক্রম সম্পন্ন হয় এবং শ্রমিক ও মালিক পক্ষ তাদের কারখানায় নিরাপত্তা বজায় রাখতে একত্রে কাজ করে। এই কাজটি এখনো অসম্পূর্ণ রয়েছে। রানা প্লাজার মর্মান্তিক স্মৃতি এবং ক্ষতিগ্রস্তরা আমাদের সকলকে প্রতিনিয়ত স্মরণ করিয়ে দেয় এবং অনুপ্রেরণা দেয় যাতে আমরা আমাদের এই প্রয়াসে সফল হই।

আমাদের ত্রৈমাসিক সভা, দেশীয় সংগঠকদের সাথে আলোচনা ও পরামর্শ সভা, যাদের মধ্যে রয়েছেন: শ্রম মন্ত্রণালয়, বিজিএমইএ, ট্রেড ইউনিয়ন, আইএলও, একর্ড এডভাইজরি বোর্ড, এবং সেই সাথে বাংলাদেশ তৈরী পোশাক খাতের কমপ্লায়েন্স এবং নিরবিচ্ছিন্নতায় সহায়তার জন্য দ্বি-পাক্ষিক আলোচনার জন্য একর্ড স্টিয়ারিং কমিটি ২৫- ২৯ এপ্রিল ২০১৬ ঢাকায় অবস্থান করবে।

একর্ড স্টিয়ারিং কমিটির ঢাকায় সাক্ষাতে একর্ডের কার্যক্রম ও সাফল্যকে ত্বরান্বিত করার জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে প্রধানত আলোকপাত করা হবে: সংশোধনী কার্যক্রম সম্পন্ন করা, কার্যকর সেইফটি কমিটিকে প্রশিক্ষণ এবং সহায়তা দেয়া, এবং জাতীয় স্টেকহোল্ডারদের সাথে ন্যাশনাল প্ল্যান অফ অ্যাকশন প্রচেষ্টায় সহায়তা করা।

বিস্তারিত তথ্যের জন্য অনুগ্রহ করে যোগাযোগ করুন:

একর্ড অফিস ঢাকা:
মাহফুজা আক্তার, কমিউনিকেশনস অফিসার
mahafuza.akter@bangladeshaccord.com
+৮৮ ০২ ৯৮৫২০৯৩
+৮৮ ০১৭৬৬৬৯৫৯২৬

বাংলাদেশের বাইরে প্রেসের জন্য:
ইয়্যোরিস ওল্ডেনজিল, হেড অফ পাবলিক অ্যাফেয়ারস এন্ড স্টেকহোল্ডার এনগেজমেন্ট
অফিস আমস্টারডাম: +৩১ (০) ২০ ৫২০ ৭৪৩১
মোবাইল: + ৩১ ৬১৪৯৫৪৪৩০
joris.oldenziel@bangladeshaccord.com

Download the statement here

একর্ড প্রগ্রেস ফ্যাক্টশিট এপ্রিল ২০১৬